Wednesday , March 29 2017
Home / জাতীয় / খাদিজা সম্পর্কে পুলিশকে যা বললেন বদরুল। দেখুন বিস্তারিত…

খাদিজা সম্পর্কে পুলিশকে যা বললেন বদরুল। দেখুন বিস্তারিত…

সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিসকে হত্যাচেষ্টার কথা স্বীকার করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলম।বুধবার বিকেলে অতিরিক্ত মহানগর হাকিম উম্মে শারাবন তাহুরার আদালতে তিনি এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

‘লজিংয়ে থাকা সময় থেকেই খাদিজাকে পছন্দ করতাম। তখনও তাকে অনেকবার প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছি। কিন্তু রাজি হয় নি। বার বার প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় খাদিজাকে কুপিয়েছি। ওই দিন এমসি কলেজের ক্যাম্পাসে গিয়েছিলাম তার সঙ্গে শেষ বুঝা-পড়া করতে। কিন্তু তার বান্ধবীদের সামনেও খাদিজা তার প্রস্তাবে সাড়া দেয় নি। এ কারনে সঙ্গে থাকা চাপাতি দিয়ে কুপিয়েছি।’- সিলেটের খাদিজার উপর হামলাকারী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলম পুলিশ ও আদালতের কাছে এসব কথা জানিয়েছে।

আদালতে ও পুলিশের কাছে বদরুল জানিয়েছে, ‘খাদিজা স্কুলে পড়ার সময় সে খাদিজাদের আউশা গ্রামের বাড়িতে লজিং থেকেছে। ওই সময় খাদিজাকে কিছু দিন পড়িয়েছে। এরপর খাদিজার প্রেমে পড়ে যায় সে। কিন্তু খাদিজা বার বারই তার প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। পরবর্তীতে খাদিজা পরিবারের কাছে বিষয়টি জানিয়ে দিলে তাকে লজিং থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।’

সোমবার এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে খাদিজাকে কুপানোর পরপরই স্থানীয়রা ধাওয়া করে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক বদরুল আলমকে আটক করে। এরপর তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করা হয়। গণধোলাইয়ে আহত হওয়ার কারনে পুলিশ বদরুলকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করেছিলো। সেখানে পুলিশি পাহারায় বদরুলের চিকিৎসা চলে।

এদিকে, বুধবার সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বদরুলকে ছাড়পত্র দেয়। পরে তাকে পুলিশি ভ্যানে করে নিয়ে যাওয়া হয় শাহপরান থানায়। সেখানে সিলেট মহানগর পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বদরুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। বিকেল ৩ টায় সিলেটের শাহপরান থানা পুলিশ বদরুলকে নিয়ে আসেন সিলেট মহানগর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে। ওই আদালতে বদরুলের জবানবন্দি গ্রহন করা হয়। বিকেল ৫ টায় জবানবন্দি গ্রহনের পর বদরুলকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় কারাগারে। সিলেটের শাহপরান থানার ওসি শাহজালাল মুন্সি জানান, বদরুল আদালতে সব কিছু স্বীকার করেছে। এর আগে পুলিশের কাছেও সব স্বীকার করে।

বদরুলের চাপাতির আঘাতে খাদিজার মস্তিস্ক ভেদ করে তার মগজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই তরুণী বর্তমানে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার অবস্থা ভাল নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। গত মঙ্গলবার তার মাথায় অপারেশনের পর চিকিৎসকরা তাকে ৭২ ঘন্টার পর্যবেক্ষণে রাখেন।

বদরুল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০৮-০৯ সেশনের অর্থনীতি বিভাগের অনিয়মিত শিক্ষার্থী। গত ৮ মে ঘোষণা করা ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় কমিটিতে তাকে সহ সম্পাদক হিসেবে রাখা হয়। যদিও সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন দাবি করেছেন, বদরুল তার সংগঠনের কেউ না।

About Azim Ahmed

Check Also

Capture

অপ্রস্তুত অবস্থায় ক্যামেরায় ধরা পড়লেন সানি লিওন…!!! (ভিডিও সহ)

অপ্রস্তুত অবস্থায় ক্যামেরায় ধরা পড়লেন সানি লিওন…!!! (ভিডিও সহ)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *